entertaintment
 06 Jul 19, 10:10 PM
 56             0

হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেল চালানোয় শাহরুখ খানকে সতর্ক করলেন শচীন তেন্ডুলকার॥

হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেল চালানোয় শাহরুখ খানকে সতর্ক করলেন শচীন তেন্ডুলকার॥

বিনোদন ডেস্কঃ সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল ভাইরাল বলিউড বাদশা শাহরুখ খানের মোটরসাইকেল চালানোর এক দৃশ্য। শাহরুখ মানেই ভাইরাল কিছু আর সেটি আরও বেশি ছড়িয়ে পড়েছে দেশটির ক্রিকেট লিজেন্ড শচীন টেন্ডুলকারের কারণে। ভিডিওতে হেলমেটহীন শাহরুখকে দেখে চমৎকারভাবে সিনেমার ভাষায় একরকম সমালোচনা করেন শচীন। অনেকে অবশ্য শচীনের ওই মন্তব্যকে সতর্কবার্তা হিসেবেই দেখছেন। মূলত মোটরসাইকেল চালাতে হেলমেট পরা জরুরি বলে কিং খানকে খোঁচা মেরেছেন লিটল মাস্টার। তিনি ওই ভিডিওর মন্তব্যের ঘরে বলেন, প্রিয় বাজিগর, ডোন্ট ‘চক’ দে হেলমেট (হেলমেট ছুড়ে ফেলে দিও না)। বাইকে উঠলে ‘যব তক হ্যায় জান’ (যতক্ষণ প্রাণ আছে) হেলমেট পর। যদিও শাহরুখ খুব ধীরে ধীরে মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন। এর পর অবশ্য শাহরুখকে অভিনন্দন জানান শচীন। তিনি লেখেন, ২৭ বছর পূর্ণ করার জন্য অভিনন্দন। শিগগিরই দেখা হবে বন্ধু। আর শচীনের সেই সতর্কবার্তাকে হালকাভাবেই নেন শাহরুখ। আরও রস মিশিয়ে পাল্টা জবাবে শাহরুখ লেখেন, ‘বন্ধু, হেলমেট পরে অনড্রাইভ, অফ ড্রাইভ ও স্ট্রেট ড্রাইভ - তোমার থেকে ভাল আর কে শেখাতে পারে! মহান শচীনের কাছ থেকে গাড়ি চালানো শিখেছি , এটাই জানাব আমার আমার নাতি-নাতনিদের। শিগগিরই তোমার সঙ্গে দেখা হবে, ধন্যবাদ।

 

বলি বাবলের খবর, বলিউডে ২৭ বছর পূর্ণ করলেন কিং খান। আর সেই দীর্ঘ ক্যারিয়ারকে ভক্ত-অনুরাগীদের সামনে আনতে গত সপ্তাহে নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে মোটরসাইকেল চালানোর একটি ভিডিও আপলোড করেন। ভিডিও দেখা গেছে, হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেল চালাচ্ছেন শাহরুখ। এসময় ‘কোয়ি না কোয়ি চাহিয়ে’ গানটি বাজতে থাকে। এ গানটি বলিউডে শাহরুখের প্রথম সিনেমা ‘দিওয়ানা’র গান। রূপালি পর্দায় ওই ভাবেই আবির্ভূত হন কিং খান। আর বিষয়কে ভক্তদের সামনে এভাবে এনেই বাইক থামিয়ে ২৭ বছরের বলিউড সফরের জন্য ধন্যবাদ জানান। ওই ভিডিও টুইটের নিচে শাহরুখ লেখেন, ধন্যবাদ সব দর্শককে দীর্ঘ ২৭ বছর হিন্দি সিনেমায় আমাকে সহ্য করার জন্য। জীবনের অর্ধেক সময় আমি হিন্দি সিনেমার জন্য দিয়েছি। কখনো ব্যর্থ হয়েছি, কখনও সফল হয়েছি। তবে সিনেমার দর্শকদের বিনোদনের জন্য সবসময়ই চেষ্টা করেছি। ‘দিওয়ানা’ ছবিতে এভাবে মোটরসাইকেল চালানোর দৃশ্য দিয়ে হিন্দি সিনেমায় আমার আগমন। তারপর দর্শকরা আমাকে এ জগতে স্থায়ী বাসিন্দা বানিয়ে দিয়েছে।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')