News71.com
 Sports
 29 Jun 16, 02:18 PM
 581           
 0
 29 Jun 16, 02:18 PM

মেসির জন্য ভক্তদের ভালবাসা

মেসির জন্য ভক্তদের ভালবাসা

স্পোর্টস ডেস্ক: ঝিরঝিরে বৃষ্টি। যেন আকাশও কাঁদছে! এরই মধ্যে বিমানবন্দরের মূল ভবন ছেড়ে বেরিয়ে এল বাসটি। ভেতরের যাত্রীদের সবার চোখেমুখে শোকের বিহ্বলতা। এ যেন শ্মশানযাত্রা।

এভাবেই গত সোমবার দেশে ফিরলেন আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা। অথচ ফেরার কথা ছিল অন্যভাবে। হওয়ার কথা ছিল বিজয়যাত্রা। হুডখোলা বাসে যে ট্রফি নিয়ে মিছিলের অপেক্ষা আর্জেন্টিনার কেবলই বাড়ছে।

তবে মেসিদের কিন্তু বীরের মতোই বরণ করে নিয়েছে বিমানবন্দরের সামনের ভিড়, বৃষ্টি উপেক্ষা করেও যাঁরা দাঁড়িয়ে ছিলেন। দলের প্রতি যাঁদের ভালোবাসা আর আবেগ সত্যিই অন্য রকম।

মায়ের কোলে আর বাবার কাঁধে ছিল ছোট শিশুও। কারও কারও হাতে ধরা ব্যানার-ফেস্টুন। বেশির ভাগ ব্যানারের ভাষাই এক : না মেসি, যেয়ো না। তবে এরই মধ্যে একটা ব্যানার আলাদা করে চোখে পড়ল সবার। যাতে ধরা মেসিকে নিয়ে তাঁর ভক্তদের ভালোবাসা, ‘মেসি, আমি তোমাকে আমার মায়ের চেয়ে বেশি ভালোবাসি।’

সেই ভিড়ে থাকা ২৯ বছর বয়সী হুয়ান পাবলো পিনাসকো যেন বিশ্বাসই করতে পারছেন না, ‘কী যে দুঃখ লাগছে বলে বোঝাতে পারব না, মনে হচ্ছে আমার হৃদয় এখনো দুই টুকরো হয়ে গেছে।’

বুয়েনস এইরেসের মিনিস্ত্রো পিস্তারিনি বিমানবন্দরে বৃষ্টিতে ভিজে তীর্থের কাকের মতো অপেক্ষা থাকা ভক্তদের আকুতিটা কি শুনেছেন? বৃষ্টির জলের সঙ্গে একাকার হয়ে যাওয়া অশ্রু কি চোখে পড়েছে মেসির? সেটা না পড়তে পারে।

কিন্তু পুরো আর্জেন্টিনার আকুতি নিশ্চয় কানে গেছে মেসির! ডিয়েগো ম্যারাডোনা থেকে খোদ আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্টও মেসিকে যে বলছেন, ‘যেতে নাহি দেব হায়!’

তবে কতটা দুঃখ থেকে মেসি অবসর নিয়েছেন, সেটা ছুঁইয়ে যাচ্ছে তাঁর পরিচিতজনদের। রোজারিওতে মেসির প্রথম কোচ ছিলেন এরনেস্তো ভেচ্চিও। এই কঠিন সময়েও মেসির পাশেই আছেন, ‘আর কত সমালোচনা সইবে ও? চলে যাওয়ার পুরো অধিকারই আছে তার।

আমি নিজেও চাই না ও চলে যাক। দলে আরও ১০ জন খেলোয়াড় থাকার পরও ওকেই ত্রাণকর্তা ভাবতে যাওয়া খুবই একটা অবিচার।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন