sports
 02 Jun 16, 03:39 PM
 217             0

চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে আইসিসির ফিক্সিং: বাংলাদেশ শক্ত গ্রুপে

চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে আইসিসির ফিক্সিং: বাংলাদেশ শক্ত গ্রুপে

স্পোর্টস ডেস্ক: ক্রিকেটে ম্যাচ পাতানো বন্ধ করতে কত উদ্যোগই না নিচ্ছে আইসিসি। দুর্নীতিবিরোধী ইউনিট গঠন, খেলোয়াড়দের আচরণবিধি তৈরি করে দেওয়া, জড়িত খেলোয়াড়দের কঠোর শাস্তি দেওয়া। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এই সংস্থাই কিন্তু ‘ফিক্সিং’য়ের আশ্রয় নিচ্ছে নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্যও । আইসিসির বড় আসরগুলোতে বিজ্ঞাপন ও সম্প্রচার বাণিজ্যের কথা চিন্তা করেই যে বারবার ভারত ও পাকিস্তানকে এক গ্রুপে রাখা হয়, সেটা সম্প্রতি স্বীকারই করে নিয়েছেন আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন।

আইসিসির সর্বশেষ চারটি আসরের মতো ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ড্রয়ের ক্ষেত্রেও দেখা গেছে একই চিত্র। এ বিষয়টি স্বীকার করে নিয়ে প্রধান নির্বাহী রিচার্ডসন বলেছেন, ‘এ ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই যে, আমরা ভারত ও পাকিস্তানকে একই গ্রুপে রাখার চেষ্টা করি। আইসিসির দৃষ্টিকোণ থেকে এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পুরো বিশ্বেই এটা খুব বড় একটা ব্যাপার। আর ক্রিকেট সমর্থকরাও এটা প্রত্যাশা করেন।’ক্রিকেট বিশ্বে অন্য যেকোনো ম্যাচের চেয়ে বেশি উত্তেজনা তৈরি করে উপমহাদেশের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের লড়াই।

বিজ্ঞাপনদাতা ও টেলিভিশন সম্প্রচারকারীদের জন্যও তাই বেশ আকর্ষণীয় পাকিস্তান-ভারত ক্রিকেটীয় লড়াই। বাণিজ্যিক এই ব্যাপারটি মাথায় রেখেই বারবার একই গ্রুপে রাখা হয় ভারত ও পাকিস্তানকে। এর আগে ২০১৩ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফি, ২০১৫ সালের বিশ্বকাপ, ২০১৪ ও ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও একই গ্রুপে দেখা গেছে ভারত ও পাকিস্তানকে।

নিয়ম অনুযায়ী লটারির মাধ্যমে নির্ধারিত হওয়ার কথা, গ্রুপ পর্বে কোন দল কোন গ্রুপে খেলবে। আইসিসির এই সিন্ধান্তের ফলে ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে বাংলাদেশকে পড়তে হয়েছে কঠিন গ্রুপে। ‘এ’ গ্রুপে বাংলাদেশকে খেলতে হবে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।

তবে এভাবে গ্রুপ নির্ধারণ করা হলেও আইসিসি বা এই প্রতিযোগিতার সততা নিয়ে প্রশ্ন তোলার সুযোগ নেই বলেই মনে করছেন রিচার্ডসন। তিনি বলেছেন, ‘আমরা এটা নিশ্চিত করার চেষ্টা করি যে, গ্রুপগুলো যেন র‍্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতেই হয়। প্রতিটি গ্রুপের র‍্যাঙ্কিং নম্বর যেন সমান থাকে। এটা অনেকভাবেই করা যায়। ফলে দুই গ্রুপের মধ্যে ভারসাম্য নিশ্চিত করতে ভারত-পাকিস্তান লড়াই বাদ দেওয়াটাই বোকামি।’

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')