sports
 04 Apr 16, 04:32 AM
 304             0

কে এই বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক কার্লোস ব্রাথওয়েট !!

কে এই বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক কার্লোস ব্রাথওয়েট !!

স্পোর্টস ডেস্কঃ ২০০৭ সাল। দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত হয় আইসিসির প্রথম টি-২০ বিশ্বকাপের আসর। সুপার টেন পর্বের এক ম্যাচে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হয় ভারত। ম্যাচে সবাইকে অবাক করে অবিশ্বাস্যভাবে স্টুয়ার্ট ব্রডের এক ওভারে ছয়টি ছক্কা তুলে নেন ভারতীয় অলরাউন্ডার যুবরাজ সিং। টি-২০ বিশ্বকাপে এরকম ইনিংস আর কখনো দেখা যাবে তা হয়তো কেউ কখনো ভাবেননি। ২০০৭ সালের পর ২০১৬ সালে এসে অর্থাৎ দীর্ঘ ৮ বছর পর টি-২০ বিশ্বকাপেই সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটলো ।

গতরাতে আইসিসি ষষ্ঠ টি-২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নিজেদের ইনিংসের শেষ ওভারে বেন স্টোকসের চার বল থেকে চারটি ছক্কা হাঁকান ক্যাবিরীয় অলরাউন্ডার কার্লোস ব্রাথওয়েট। তাও আবার এমন এক মুহূর্তে যখন জয়ের জন্য শেষ ওভারে ক্যারিবীয়দের দরকার ছিল ১৯ রান। ক্যারিবীয়রা এই ম্যাচে হারছেন তা অনেকেই নিশ্চিত ধরে নিয়েছিল। কিন্তু অবিশ্বাস্যভাবে বেন স্টোকসের করা প্রথম ডেলিভারিতে ছক্কা মেরে এ ব্যবধানে ১৩ তে কমিয়ে আনেন। ফলে ৫ বলে জয়ের জন্য দরকার ছিল ১৩  রান। স্টোকস ওভারের দ্বিতীয় বল করতে এসে ফের হোঁচট খেলেন। ব্রাথওয়েট যে ফের ছ্ক্কা মেরে বসেন! ৪ বলে জয়ের জন্য যখন ৭ রান দরকার তখন বেন স্টোকসের বল থেকে ফের ছক্কা হাঁকিয়ে স্কোর লেবেল করেন এই বার্বাডিয়ান। তখন জয় ছিল কেবল সময়ের ব্যাপার মাত্র কারণ দরকার ছিল ৩ বলে মাত্র ১ রান। কিন্তু ব্রাথওয়েটকে কে থামায়? ১ রান নয়, ফের ছক্কা মেরে দেশের জন্য নতুন ইতিহাস রচনা করলেন তিনি। ব্রাথওয়েট'র চার ছক্কার বিনিময়ে প্রথম দল হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয়বারের মতো আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপ শিরোপা জিতলো ।

কিন্তু যে এই ইতিহাস রচনা করলেন সেই ব্রাথওয়েটকেই আমরা অনেকে ততটা চিনি না। ১৯৮৮ সালে বার্বাডোজে জন্ম নেয়া ব্রাথওয়েটের ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে অভিষেক হয় ২০১১ সালে। ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে ৮ ম্যাচে নেন ২৬টি উইকেট! আর এতেই কপাল খুলে যায় তার। একই বছর ক্যারিবীয়দের বাংলাদেশ সফরে টি-২০ স্কোয়াডে জায়গা হয় তার। এ সফরে ক্যারিবীয়রা টাইগারদের বিপক্ষে মাত্র ১টি টি-২০ ম্যাচ, দুটি টেস্ট ও তিনটি ওডিআই ম্যাচ খেলে।  বাংলাদেশ সফরেই আন্তর্জাতিক ওডিআই ক্রিকেটে অভিষেক হয় ব্রাথওয়েটের। আর সদ্য সমাপ্ত টি-২০ বিশ্বকাপেই তার টি-২০ বিশ্বকাপে অভিষেক হয়। আর অভিষেকেই দেশের জন্য ইতিহাস রচনা করেছেন ।

কার্লোস ব্রাথওয়েট এখন পর্যন্ত মাত্র ৮টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন। নিয়েছেন ৫টি উইকেট। গতরাতে ইডেন গার্ডেন্সে ম্যাচজয়ী অপরাজিত ৪০ রানের পাশাপাশি বল হাতে নিয়েছেন মূল্যবান ৩টি উইকেট। নিজের ৪ ওভারের স্পেলে ২৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট লাভই তার সেরা বোলিং ফিগার। আর সাতটি ওডিআই ম্যাচে নিয়েছেন ৩টি উইকেট। ব্যাট হাতে গতরাতের ৪০ রানই তার টি-২০ ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত সংগ্রহ। আর দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। সর্বোচ্চ সংগ্রহ ৬৯। এছাড়া সাতটি ওডিআই ম্যাচ থেকে করেছেন  ৭১ রান। সর্বোচ্চ রান ১৮ ।

এদিকে, টি-২০ বিশ্বকাপ শেষ হলেও ক্রিকেটবিশ্ব শিগগিরই ব্রাথওয়েটের অ্যাকশন দেখতে পারবে। কারণ ৯ এপ্রিল থেকে শুরু হতে যাওয়া নবম আইপিএল'র আসরে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের হয়ে খেলবেন তিনি। আইপিএল'র এই দলটি তাকে ৪.২ কোটি রুপিতে কিনে নেয় ।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')