News71.com
 International
 27 Jun 22, 08:57 PM
 1152           
 0
 27 Jun 22, 08:57 PM

১০০ বছরেরও বেশি সময় পর প্রথম ঋণখেলাপি ।। রাশিয়া

১০০ বছরেরও বেশি সময় পর প্রথম ঋণখেলাপি ।। রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ১০০ বছরেরও বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো বৈদেশিক ঋণের কিস্তি পরিশোধে ব্যর্থ হয়েছে রাশিয়া। রোববারের মধ্যে ১ হাজার কোটি ডলার পরিশোধ করার কথা ছিল দেশটির। ব্লুমবার্গের বরাত দিয়ে বিবিসি এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।এ প্রসঙ্গে রুশ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রাশিয়ার কাছে অর্থ রয়েছে এবং ঋণ পরিশোধের জন্য দেশটি ইচ্ছুক। কিন্তু আন্তর্জাতিক বিভিন্ন নিষেধাজ্ঞার কারণে ঋণদাতাদের অর্থ প্রদান করা অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই অবস্থায় রাশিয়া ভবিষ্যতে আর কোনো বৈদেশিক ঋণ নেবে না বলে জানিয়েছে দেশটির অর্থমন্ত্রী সিলুয়ানভ।


ঋণ খেলাপি হওয়া যে কোনোভাবে এড়াতে চাইছিল ক্রেমলিন। কারণ এটা রাশিয়ার মর্যাদার ওপর বড় ধরনের ধাক্কা।বর্তমানে রাশিয়ার বৈদেশিক ঋণের পরিমাণ ৪ হাজার কোটি ডলার। আর জ্বালানি সরবরাহ করে দৈনিক ১০০ কোটি ডলার আয় করছে দেশটি।এর আগে, রাশিয়া বিদেশি ঋণে শেষবার খেলাপি হয়েছিল ১৯১৮ সালে, বলশেভিক বিপ্লবের সময় কমিউনিস্ট নেতা ভ্লাদিমির লেনিন জারশাসিত রুশ সাম্রাজ্যের ঋণ পরিশোধ করতে অস্বীকার করেছিলেন।এ ছাড়া ১৯৯৮ সালে অভ্যন্তরীণ ঋণ পরিশোধে রাশিয়া ব্যর্থ হয়েছিল। প্রেসিডেন্ট বরিস ইয়েলেৎসিনের মেয়াদের শেষ দিকে ওই সময়টায় রাশিয়া মারাত্মক রুবল সঙ্কটে ভুগছিল। সে কারণে অভ্যন্তরীণ বন্ডের সুদ দিতে ব্যর্থ হলেও বিদেশি ঋণে খেলাপি হওয়া এড়াতে পেরেছিল মস্কো।কিন্তু এবার সেটা এড়ানো সম্ভব হয়নি যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের ইউরোপীয় মিত্রদের রাশিয়ার ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞার কারণে।বিশ্বের প্রধান আন্তর্জাতিক লেনদেন পরিষেবা সুইফট থেকেও রাশিয়ার বড় ব্যাংকগুলোকে বাদ দেয়া হয় গত ফেব্রুয়ারিতে। ফলে রাশিয়ার রপ্তানি বাণিজ্যও মারাত্মকভাবে বাধাগ্রস্ত হয়। কারণ নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়ার পণ্য কিনে এখন ডলারে দাম পরিশোধ করা সম্ভব হচ্ছে না কোনো দেশের পক্ষে।রাশিয়া সরকার বলেছে, তারা তাদের সব কিস্তিই সময়মতো পরিশোধ করতে চায় এবং রোববারের আগ পর্যন্ত তা পরিশোধ করতে তারা সক্ষমও হয়েছে। যুদ্ধ শুরুর পর থেকে গত চার মাসে দেশে ও দেশের বাইরে ৪০ বিলিয়ন ডলারের ঋণ তারা ডলার অথবা ইউরোতে শোধ করেছে।

 

সূত্র:  বিবিসি

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন