News71.com
 International
 22 Aug 21, 07:40 PM
 45           
 0
 22 Aug 21, 07:40 PM

আফগানিস্তানে যাচ্ছেন পাক বিদেশমন্ত্রী ও আইএসআই প্রধান॥ সরকার গঠনে প্রত্যক্ষ মদতের ঈঙ্গিত

আফগানিস্তানে যাচ্ছেন পাক বিদেশমন্ত্রী ও আইএসআই প্রধান॥ সরকার গঠনে প্রত্যক্ষ মদতের ঈঙ্গিত

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ আফগানিস্তানে তালিবানি শাসন যত মজবুত হচ্ছে, তালিবান শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে ক্রমশ পোক্ত হচ্ছে পাকিস্তানের সম্পর্ক। এতদিন সরাসরি তালিবানকে সমর্থনের কথা বলছিল পাকিস্তান। এবার তালিবান শাসনে জেহাদি নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করতে কাবুল যাচ্ছেন পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী মহম্মদ কুরেশি । রবিবারই আফগানভূমে তিনি পা রাখছেন বলে খবর। তবে বিদেশমন্ত্রীর সফরের আগেই আফগানিস্তানে দেখা মিলেছে পাকিস্তান গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই (ISI)-এর প্রধান হামিদ ফইজের । কান্দাহারে তাঁকে তালিবান নেতা আবদুল ঘানি বরদারের সঙ্গে নমাজ পড়তে দেখা গিয়েছে। এর পরই সরকার গড়ার পরিকল্পনা নিয়ে কাবুলে উড়ে যান বরদার। সম্ভবত তিনিই হতে চলেছেন তালিবান সরকারের রাষ্ট্রপতি। স্বাভাবিকভাবেই তার সঙ্গে আইএসআই প্রধানের এই ঘনিষ্ঠতা দিল্লির কর্তাদের রাতের ঘুম ছুটিয়েছে। এর মধ্যেই কাবুলে উড়ে যাচ্ছেন পাক বিদেশমন্ত্রী।

সূত্রের খবর, কাবুলের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিয়েছে হাক্কানি নেটওয়ার্ক। তালিবানের সহযোগী সবচেয়ে নৃশংস এই জঙ্গিদের সঙ্গে আবার দীর্ঘদিন ধরেই পাক গুপ্তচর সংস্থার ঘনিষ্ঠতা। তাঁরা নিরাপত্তার দায়িত্ব নেওয়ার পরই কাবুলে পা রাখতে চলেছেন মহম্মদ কুরেশি। এ প্রসঙ্গে বলে রাখা ভাল, তালিবান শাসনে এটাই প্রথম কোনও বিদেশি অতিথি তথা মন্ত্রী আফগানভূমে যাচ্ছেন। সূত্রের খবর, তালিবান সরকার গঠন নিয়ে আলোচনায় বসবেন তিনি। বৈঠক করবেন হাক্কানি নেটওয়ার্কের সঙ্গেও। আর এই তথ্যই ভাবাচ্ছে নয়াদিল্লিকে। ইতিমধ্যে চিন, রাশিয়া, বেলজিয়াম-সহ একাধিক দেশের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন কুরেশি। যার বিষয় ছিল, পাকিস্তানের স্বার্থে তালিবান সরকারকে সমর্থন। আফগানভূমে তালিবান শাসন প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তা বেড়েছে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। কারণ, চিন-পাকিস্তান-তালিবান জোট ভারতে গোলমাল পাকানোর ছক কষতেই পারে। আবার কাশ্মীরকে অশান্ত করতে তালিবানের সাহায্য চেয়েছে হিজবুল্লা। আর এই হাক্কানি নেটওয়ার্ক বরাবরই পাক ঘনিষ্ঠ। এই ঘনিষ্ঠতাই আপাতত ভাবাচ্ছে ভারতকে।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন