international
 19 Mar 16, 01:46 AM
 199             0

প্রয়োজনে আবারো সিরিয়ায় ফিরবে রুশ সেনা ।। প্রেসিডন্ট পুতিন

প্রয়োজনে আবারো সিরিয়ায় ফিরবে রুশ সেনা ।। প্রেসিডন্ট পুতিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলকে দেশটির কুর্দিদের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণাকে ভালভাবে নেয়নি রাশিয়া। হুঁশিয়ারি দিয়ে রুশ প্রেসিডন্ট বলেছেন প্রয়োজন মনে করলে আবারো যে কোনো সময় সিরিয়ায় রুশ সেনা মোতায়েন করা হবে। শান্তি প্রক্রিয়াকে ব্যাহত করে, এমন যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাশিয়া প্রস্তুত বলেও জানান তিনি। এ অবস্থায় সিরীয় সরকারের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে প্রেসিডেন্ট আসাদকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে বলে মন্তব্য করেছে ব্রিটেন।

এদিকে, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলকে দেশটির কুর্দিদের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণাকে অবৈধ এবং একে কোনভাবেই মেনে নেয়া যায়না বলে জানিয়েছে আসাদবিরোধী জোট এইচএনসি। চলতি সপ্তাহে জেনেভা শান্তি আলোচনা শুরুর দু'দিন পর থেকেই সিরিয়া ছাড়তে শুরু করে রুশ সামরিক বাহিনীর সদস্যরা। এর মধ্যেই বৃহস্পতিবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা দিলেন, সিরিয়া পরিস্থিতির অবনতি হলে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে আবারো মোতায়েন করা হতে পারে সেনাদের।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, 'সিরিয়ায় সামরিক হস্তক্ষেপ আমারও চাইনা। কিন্তু শান্তি প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিতে দেশটির সরকার ও বিরোধীপক্ষ যদি ন্যূনতম সদিচ্ছা না দেখায়, তবে আবারো আমাদের তাই করতে হবে। কারণ সামরিক হস্তক্ষেপ ছাড়াও, যুক্তরাষ্ট্রসহ সিরিয়া সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করে শান্তি আলোচনার পরিবেশ তৈরি করেছি।'

এর মধ্যেই সিরিয়ায় নিযুক্ত ব্রিটেনের রাষ্ট্রদূত গ্যারেথ বেইলি অভিযোগ করেছেন, প্রেসিডেন্ট আসাদ রাষ্ট্র পরিচালনায় পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছেন। জেনেভায় জাতিসংঘের সিরিয়া বিষয়ক এক আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে তিনি বলেন, যুদ্ধরিবতি শুরুর পর সিরিয়ার বেশিরভাগ এলাকাতেই শান্তি ফিরে এসেছে।

সিরিয়ায় ব্রিটেনের রাষ্ট্রদূত গ্যারেথ বেইলি বলেন, 'সিরিয়ায় নিজ বেসামরিক জনগণের ওপর নির্যাতন ও অত্যাচার চালিয়ে প্রেসিডেন্ট আসাদ সুস্পষ্টভাবেই মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছেন। এর ভুরি ভুরি প্রমাণ রয়েছে। তাকে অবশ্যই বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। আশা করি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নেবে।'

এ অবস্থায় আসাদ বিরোধীদের জোট এইচএনসি জানিয়েছে কুর্দিদের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল ঘোষণাকে কোনমতেই মনে নবে না সিরীয় জনগণ। জেনেভায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন জোটের সদস্য জর্জ সাবরা।

এইচএনসি'র প্রতিনিধি জর্জ সাবরা বলেন, 'তাদের দাবি সম্পূর্ণ অবৈধ। কারণ ভবিষ্যতের সিরিয়া কেমন হবে তা নির্ধারণ করার অধিকার একমাত্র সিরীয় জনগণেরই রয়েছে। তাছাড়া আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ও এর বিরোধিতা করছে। এটা পুরোপুরি স্বেচ্ছাচারী আচরণে শামিল।'

গত বৃহস্পতিবার কয়েকটি গণমাধ্যমে কুর্দিরা সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তাদের নিয়ন্ত্রিত এলাকায় স্বায়ত্তশাসন ঘোষণা করেছে বলে খবর প্রচারিত হয়। পরে আনুষ্ঠানিকভাবে আলেপ্পো প্রদেশের আফরিন, কোবানে ও হাসাকাহ প্রদেশের জাজিরা এলাকা নিয়ে স্বায়ত্তশাসিত প্রদেশের ঘোষণা দেয় কুর্দিরা। জেনেভায় চলমান শান্তি আলোচনায় কুর্দি প্রতিনিধিদের অন্তর্ভুক্ত না করায় এই স্বায়ত্তশাসনের ঘোষণা বলেও জানায় তারা। অবশ্য সিরীয় সরকার তাদের এ দাবি নাকচ করে দিয়েছে।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')