News71.com
 Health
 02 Nov 23, 10:08 AM
 205           
 0
 02 Nov 23, 10:08 AM

শিশু ঠাণ্ডা সর্দিতে ভুগলে করণীয়

শিশু ঠাণ্ডা সর্দিতে ভুগলে করণীয়

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ এখনকার আবহাওয়া বেশ বিপজ্জনক। সারা দিন গরম থাকলেও শেষরাতে ঠাণ্ডা পড়ে। এ জন্য এখনকার আবহাওয়ায় শিশুদের ঠাণ্ডা-সর্দিতে ভুগতে দেখা যায়। শিশুকে সুস্থ রাখতে বিস্তারিত পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকবৃন্দ।

শিশু বয়সে ডাক্তার দেখানোর প্রধান কারণ ঠাণ্ডা-সর্দি। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে চারপাশের বাতাসে ভেসে থাকা ভাইরাসজনিত কারণে বা হাতে লাগে এমন সব বস্তুর সংস্পর্শ হতে ঠাণ্ডা-সর্দি অসুখের সূত্রপাত হয়। এর প্রেসক্রিপশন বেশ সহজ; সময়ের সঙ্গে শিশু সেরে উঠবে এবং তাকে পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে হবে।

লক্ষণঃ

নাক জ্যাম ভাব, সর্দি ঝরা-প্রথমে পানির মতো ঝরবে। পরে তা ঘন হলুদাভ হয়ে উঠতে পারে। খুসখুস গলা বা গলা ব্যথা। হাঁচি ও কাশি হবে। ক্লান্তি ভাব, মাথা ব্যথা সাথে সামান্য জ্বর, খাবারে অনীহা। 

করণীয়ঃ

প্যারাসিটামল দেওয়া। ভাপ বা বাষ্প নাক দিয়ে টানতে বলা। নাসারন্ধ্র খোলা রাখতে লবণ জল বা স্যালাইন জলের ড্রপস ব্যবহার করা। প্রচুর পরিমাণে তরল খাবার, বুকের দুধ, ফলের রস খাওয়ানো। তবে ক্যাফেইন যুক্ত পানীয় খাওয়া যাবে না। ২ বছরের নিচে কম বয়সী শিশুকে কফ-কাশির সিরাপ কখনো না দেওয়া। শিশুকে কখনো এসপিরিনজাতীয় ওষুধ দেওয়া যাবে না।

যখন চিকিৎসা প্রয়োজনঃ

যদি ঠাণ্ডা-সর্দির প্রকৃতি এক সপ্তাহে না কমে। ভাঙা কাশি ও এর সঙ্গে শ্বাসে শাঁই আওয়াজ হয়। শিশুকে বেশ অসুস্থ দেখালে বা বেশি মাত্রার জ্বর হলে। গলা ব্যথার কারণে শিশু যদি খেতে বা পানীয় পান করতে না পারে। তীব্র মাথা ব্যথা হলে। 

প্রতিরোধে যা মানতে হবেঃ

শিশুকে ঠাণ্ডা-সর্দিতে আক্রান্ত বা ধূমপানরত এমন কারো কাছাকাছি থাকতে নিষেধ করা। অন্য শিশুর সঙ্গে খেলার পর বা নাক ধরার পর সময়মতো এন্টিসেপটিক হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে হাত ধুয়ে দেওয়া। সর্দি বা হাঁচি-কফ টিস্যু বা রুমালে মুছে নিতে বলা।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন