bangladesh
 09 Oct 19, 10:40 PM
 7             0

চাঁপাইনবাবগঞ্জের দু’বারের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ এখন সবজি বিক্রেতা ।।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের দু’বারের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ এখন সবজি বিক্রেতা ।।

নিউজ দেস্কঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জে সাড়ে ৮ বছর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান থেকেও এখন একজন সবজি বিক্রেতার কাজ করছেন আব্দুর রশিদ। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট উপজেলার মেডিকেল মোড়ে নিয়মিত সবজি বিক্রি করেন, এভাবেই জীবিকা নির্বাহ করেন তিনি। তার সাথে কথা বলে জানা গেছে, তিনি ২০০৩ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত মোট সাড়ে ৮ বছর গোহালবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। চেয়ারম্যান থাকাকালীন তিনি সততার সাথে কাজ করেছেন। ইউনিয়ন পরিষদ হতে প্রাপ্ত বেতন ছাড়া তিনি কোন সুবিধা ভোগ করেননি। বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান একবার বা দুইবার নির্বাচিত তারা স্বয়ংসম্পর্ণ হয়ে যান, অনেকে বনে যান আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ। কিন্তু আব্দু রশিদ ওইপথে হাঁটেননি, তাতে দুঃখও নেই তার। সৎ রোজগারে জীবন ও সংসার দুটোই চালান এটাই তাঁর আনন্দ। আব্দুর রশিদ জানান, কে কী করছে সেটা তাঁর ব্যাক্তিগত ব্যাপার। আমি কখনো আমানতের খেয়ানত করিনি। কারণ আমার কাজের জন্য হিসাব আমাকেই দিতে হবে। সাড়ে আট বছরে সরকার প্রদত্ত যেসকল বরাদ্দ পেয়েছি সেগুলো সরকারি বিধি মোতাবেক ব্যবহার করেছি। নিজ পকেটে আনিনি। আগামীতে জনপ্রতিনিধি হতে চান কীনা প্রশ্ন করলে তিনি জানান, আমি জনপ্রতিনিধি ছিলাম, জনপ্রতিনিধি হবার ইচ্ছে অবশ্যই আছে। আমি আবারো জনপ্রতিনিধি হতে চেষ্ঠা চালিয়ে যাবো। হতে পারলে দৃষ্টান্ত রাখবো এখনো সততার সাথে কাজ করা সম্ভব। তিনি বলেন, আমাকে এলাকার লোকজন মাঝে মাঝে সহানুভূতি হানিয়ে বলেন, এই সৎ মানুষটা জীবনে কিছু করলো না, বেচারা সবজি বিক্রি করছেন। আমি তখন আনন্দিত হই, মানুষ সৎ মানুষকে সৎ স্বীকৃতি দেয়। আমি বিশ্বাস করি একজন জনপ্রতিনিধির এর বেশি প্রাপ্তির কিছু থাকা উচিৎ নয়। তিনি এও জানান, যতদিন বাঁচবো সৎপথে জীবন যাপন করে যাবো।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')