lifestyle
 23 Mar 19, 07:59 AM
 79             0

টোটকা॥ গরমে মুখের ঘাম ও ঘামাচি কমাবেন যেভাবে

টোটকা॥ গরমে মুখের ঘাম ও ঘামাচি কমাবেন যেভাবে

লাইফস্টাইল ডেস্ক: আমাদের দেশের মত গ্রীষ্ম প্রধান দেশে গরমকাল থাকে ৬ মাসের বেশি সময়। গরমকালে আমাদের যে সমস্যাগুলো সবচেয়ে বেশি হয় তা হলো অতিরিক্ত ঘাম আর ঘামাচি। তবে এই সময়ে নিয়মিত ত্বকের যত্ন নিলে আর একটু সচেতন হলেই কিন্তু ঘাম ও ঘামাচি থেকে ত্বককে রক্ষা করতে পারি।

গরমে ঘাম হবে এটাই স্বাভাবিক, কিন্তু অতিরিক্ত ঘাম খুব দ্রুত শরীরকে দুর্বল করে দেয়। অনেকেরই মুখ সারা দিনই ঘামে ভেজা থাকে ফলে ত্বকে বিভিন্ন সমস্যা তৈরি হয়। এর হাত থেকে রক্ষা পেতে গোলাপজল ও শসার রস সমপরিমানে নিয়ে বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন। এটি ৭ দিন পর্যন্ত ভাল থাকে। রোদ থেকে ফিরে এসে চোখে মুখে পানির ঝাপটা দিয়ে তুলার সাহায্যে মুখটা মুছে নিন। খুব বেশি ঘাম থেকে রেহাই পেতে এই মিশ্রণ ব্যাগেই রাখুন। প্রতি ২ ঘণ্টা পরপর মুছে নিন।গোলাপজল আর মুলতানি মাটি একসঙ্গে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। গোসলের ১৫ মিনিট আগে সারা গায়ে মেখে নিন। তারপর গোসল করে ফেলুন। ঘাম কমে যাওয়ার সাথে সাথে এর সুগন্ধে ক্লান্তিও কেটে যাবে।১৫-২০টি বড় আকারের এলাচি সারারাত পানিতে ভেজান। ১০টি তেজপাতা আর মুলতানি মাটি একসঙ্গে মিশিয়ে বডি প্যাক হিসাবে সপ্তাহে ৩ দিন ব্যবহার করুন। ঘাম কম হবে।

ঘামাচি থেকে বাঁচতে টক দই-এর মত আর কিছুই কাজ করে না। গোসলের আগে আটা আর টক দই মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। শরীরে লাগানোর পর শুকিয়ে গেলে হাত দিয়ে ঘষে ঘষে তুলে ফেলুন।নিমপাতা, তুলসিপাতা, পুদিনাপাতা বেটে এর রস ছেঁকে নিন। কাঁচা হলুদ-এর সমপরিমান রসের সঙ্গে মেশান। একটি বোতলে ভরে ফ্রিজে রাখতে পারেন ৭ দিনের জন্য। বাইরে থেকে ফিরে এসে তুলায় করে এই মিশ্রণ ঘামাচি আক্রান্ত স্থানে লাগান। ১৫ -২০ মিনিট পর্যন্ত রাখুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।শুকনো তেজপাতা ব্লেন্ডার-এ মিহি গুঁড়ো করে নিন। গোলাপজলে মিশিয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগান। ঘামাচি কমার সাথে সাথে ত্বকও হবে মসৃণ।সংবেদনশীল ত্বকে অনেক সময় শরীরের সাথে সাথে মুখেও গুঁড়ি গুঁড়ি ঘামাচি হয়। অল্প পরিমান লাউবাটা, তুলসিপাতা, চালের গুঁড়ো বেটে একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগালে কমবে খুব সহজেই।যাদের ত্বক অতিরিক্ত তৈলাক্ত, তারা আইস কিউব-এর ট্রেতে শসার রস জমিয়ে নিন। বাইরে থেকে ফিরে এই বরফ মুখে ঘষলে তৈলাক্ত ভাব কেটে যাবে সহজেই।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')