bangladesh
 18 Aug 19, 07:42 PM
 34             0

সুরমার পাড়ে চলছে উচ্ছেদ অভিযান॥গড়ে তোলা হবে দৃষ্টিনন্দন স্থাপনা

সুরমার পাড়ে চলছে উচ্ছেদ অভিযান॥গড়ে তোলা হবে দৃষ্টিনন্দন স্থাপনা

নিউজ ডেস্কঃ সিলেটে চলছে সুরমার দু'পাড়ের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ। এই উচ্ছেদ অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়েছে নগরবাসী। মেয়র বলছেন, উচ্ছেদ শেষে নির্মাণ করা হবে ওয়াকওয়ে পার্ক। সাতশো বছরের পুরনো শহর সিলেট। সুরমা নদীকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠে এক সময়ের শ্রীহট্ট নামের এ শহরটি। কালের বিবর্তনে শহরের বিস্তৃতি বাড়লেও সুরমা হারিয়েছে তার রূপ সৌন্দর্য। ভরাট হয়েছে নদীর বুক, দখল হয়েছে পাড়। সিলেট শহরের বুক চিরে বয়ে চলা নদীটির দু'পাড়ে হাজার হাজার অবৈধ কাঁচাপাকা স্থাপনা। অধিকাংশ স্থাপনা নদীতে ঝুলানো। অথচ নদীর ৫০ ফুটের মধ্যে কোন স্থাপনা করা নিষেধ। নদীতে এতোদিন দখলদারদের রাজত্ব চললেও এবার তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া শুরু করেছে প্রশাসন। সিটি করপোরেশন এলাকায় সুরমার ৯ কিলোমিটারের মধ্যে এখন পর্যন্ত এক কিলোমিটার এলাকার অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে।


মেয়র জানান, উচ্ছেদ পুরোপুরি শেষ হলে বিদেশের মতো সাজানো হবে সুরমাকে। থাকবে বিনোদন কেন্দ্র। সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, আমরা যদি ফলজ গাছ লাগিয়ে ন্যাচারাল পার্কের মত গড়ে তুলতে পারি তাহলে মানুষের শ্বাস প্রশ্বাসের জায়গা পাবে। নদী পাড়ের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবি দীর্ঘদিনের। এটা বাস্তবায়ন হওয়ায় খুশি নগরবাসী। এদিকে, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের পর মাস্টার প্ল্যান অনুযায়ী সুরমাকে সাজানোর পরামর্শ নগরবিদদের। শাবিপ্রবির পুর ও পরিবেশ কৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মুশতাক আহমদ বলেন, গাড়ি চলার রাস্তা ও হাঁটার রাস্তা যদি হয় তাহলে দখলের সুযোগ কমবে, যানজট কমবে এবং স্বাস্থ্য সচেতনরা হাঁটতে পারবে। কয়েক বছর আগে কিন ব্রিজ এলাকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে বাড়ানো হয় সৌন্দর্য। কোলাহলমুক্ত সময় কাটাতে নাগরিক ও পর্যটকরা বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সময় কাটান সেখানে।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')