bangladesh
 02 Sep 19, 07:07 PM
 154             0

বুদ্ধি আর ভাগ্যের জোরে বাঁচল কিশোর ইমরান॥ বঙ্গোপসাগরে ছিটকে পড়ার ৫ দিন পর ভারতে উদ্ধার

বুদ্ধি আর ভাগ্যের জোরে বাঁচল কিশোর ইমরান॥ বঙ্গোপসাগরে ছিটকে পড়ার ৫ দিন পর ভারতে উদ্ধার

নিউজ ডেস্কঃ ট্রলার থেকে ছিটকে পড়া ১৪ বছরের কিশোর জেলে ইমরান হোসেন পাঁচদিন গভীর সমুদ্রে ভেসে বু্দ্ধিমত্তা আর ভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে আছে। তবে সে ভাসতে ভাসতে বাংলাদেশের জলসীমা অতিক্রম করে ভারতীয় জলসীমায় অনুপ্রবেশে করে। এভাবে কেটে যায় ৪ দিন ৪ রাত। কিন্ত অদম্য ইমরান বাঁচার আশা ছাড়ে না। সেখান থেকে তাকে ভারতীয় জেলেরা উদ্ধার করে স্থানীয় রায়দিঘি থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। বর্তমানে সেখানকার হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে। ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া ইমরান হোসেন বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার চরদুয়ানী ইউনিয়নের মঠেরখাল গ্রামের ইসমাইলের ছেলে। এর আগে উপজেলার চরদুয়ানী ইউনিয়নের মঠেরখাল গ্রামের ইসমাইলের মালিকানাধীন এফবি ইমরান ট্রলারসহ ১২ জেলে সোমবার (২৬ আগস্ট) সমুদ্রে মাছ শিকার করে ফিরে আসার পথে গত ২৭ আগস্ট বলেশ্বর নদের মোহনায় হঠাৎ ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলারটি। মুহূর্তের মধ্যেই ইমরান ট্রলার থেকে ছিটকে সাগরে পড়ে যায়। সন্ধান না পেয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে শনিবার (৩১ আগস্ট) রাতে পাথরঘাটা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়, যার নম্বর- ১৩৪৪।

উদ্ধারের পর ইমরান জানায়, তারা ১২ মৎস্যজীবী এফবি ইমরান নামের একটি ট্রলারে করে সমুদ্রে মাছ ধরছিল। হঠাৎ সে সমুদ্রে পড়ে যায়। আর উঠতে পারেনি। এরপর ঢেউ আর স্রোতে মধ্যে পরনের লুঙ্গি ফুলিয়ে ভাসতে থাকে। একপর্যায়ে ৪ দিনের মাথায়ই সে শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ে। ইমরানকে উদ্ধারের পর ভারতীয় মৎস্যজীবীরা তাকে নিয়ে যায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবার মহকুমার রায়দীঘি বন্দরে। সেখানে তাকে ভর্তি করানো হয় গ্রামীণ হাসপাতালে। ডায়মন্ড হারবারের মহকুমা প্রশাসক সুকান্ত সাহা বলেছেন, আইনি প্রক্রিয়ার মাধম্যে ইতিমধ্যেই বাংলাদেশি মৎস্যজীবীকে দেশে ফেরানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ বিষয় বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, নিখোঁজ হওয়ার পর থেকেই আমরা বিভিন্নভাবে অনুসন্ধান করেছি। পরে জানতে পেরেছি ভারতীয় জেলেরা ইমরানকে উদ্ধার করে রায়দিঘি থানায় হস্তান্তর করেছে। ইমরানের জীবিত উদ্ধারের ঘটনায় তার পরিবার ও সহকর্মীেদের মধ্যে আনন্দের জোয়ার বইছে। এখন সকলেই তার ঘরে ফেরার অপেক্ষায় ।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')