bangladesh
 16 Feb 20, 01:09 PM
 30             0

বগুড়ায় বন্ধুকে দিয়ে ধর্ষণ করিয়ে স্ত্রীর গায়ে আগুন॥

বগুড়ায় বন্ধুকে দিয়ে ধর্ষণ করিয়ে স্ত্রীর গায়ে আগুন॥

নিউজ ডেস্কঃ বগুড়ায় স্বামী ও তার বন্ধুর হাতে এক গৃহবধূর বর্বরোচিত নির্যাতনের শিকার হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। নিজের স্ত্রীকে শায়েস্তা করতে এক পাষন্ড স্বামী তার বন্ধুকে দিয়ে ধর্ষণের পর মাথার চুল কেটে দেয়াসহ শরীরে দাহ্য পদার্থ ঢেলে দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেন। মধ্যযুগীয় বর্বরতায় নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূ বর্তমানে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারের (ওসিসি) অধীনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।ঘটনার পর থেকে গৃহবধূর স্বামী রফিকুল (২৬) ও তার অজ্ঞাত বন্ধু (২৫) পলাতক রয়েছেন।ভুক্তভোগী গৃহবধূ একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সেলসম্যান হিসাবে কাজ করতেন। কিছুদিন ধরে তাদের সম্পর্কে তিক্ততা শুরু হয়। 

 

 

গৃহবধূর অভিযোগ, তার স্বামী তাকে তালাক দেয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিলেন। এ অবস্থায় জানুয়ারি মাসে রফিকুল তাকে মারপিট করে বাড়িতে তালাবদ্ধ করে রেখে গিয়েছিলেন। পরে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় সে সময় তিনি উদ্ধার পেয়ে হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নেন। এর পর থেকে স্বামী রফিকুল বাড়িতে আসতেন না। গতকাল শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের কিছু আগে ওই গৃহবধূ বাড়িতে একাই ছিলেন। এসময় তার স্বামী এক বন্ধুকে নিয়ে প্রাচীর টপকে বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করেন। প্রথমেই তার মুখ চেপে ধরে ঘরের ভেতরে নেয়া হয়। সেখানে হাত ও মুখ কাপড় দিয়ে বেঁধে ফেলে মারপিট করা হয়। এর পর রফিকুল তার বন্ধুকে ঘরের ভেতর ঢুকিয়ে দিয়ে বাইরে অবস্থান করেন।

 

 

গৃহবধূর অভিযোগ এসময় স্বামীর বন্ধু তাকে উপর্যুপরি ধর্ষণ করেন। পরবর্তীতে গৃহবধুটির স্বামী রফিকুল ও তার বন্ধু মিলে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে বেল্ট জাতীয় কিছু দিয়ে একাধিক আঘাত করেন। এক পর্যায়ে তার মাথার চুল কেটে দেয়া হয় এবং বোতলে থাকা এসিড বা দাহ্য জাতীয় পদার্থ শরীরে ঢেলে দেয়ার পর আগুন দিয়ে দু’জনই পালিয়ে যান।নৃশংস নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ কোনোভাবে ঘর থেকে বেরিয় এসে চিৎকার শুরু করলে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করেন। বগুড়ার অতিরিক্ত  পুলিশ সুপার গাজিউর রহমান জানান, নির্যাতিত মেয়েটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আসামিদের গ্রেফতারের জন্য চেষ্টা চলছে।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')