bangladesh
 26 Mar 19, 02:44 PM
 23             0

আসন্ন বাজেটে ভর্তুকি ও প্রণোদনায় বরাদ্দ বাড়ছে॥ অর্থ মন্ত্রনালয়

আসন্ন বাজেটে ভর্তুকি ও প্রণোদনায় বরাদ্দ বাড়ছে॥ অর্থ মন্ত্রনালয়

নিউজ ডেস্ক: আগামী ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের বাজেটে চলতি ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের বাজেটের চেয়ে ভর্তুকি ও প্রণোদনা খাতে বরাদ্দ বাড়াতে হচ্ছে। চলতি অর্থবছরের চেয়ে চার হাজার ৩০০ কোটি টাকা বাড়িয়ে এখাতে নতুন অর্থবছরের জন্য ৪২ হাজার ১০০ কোটি টাকার প্রস্তাব করা হচ্ছে। চলতি অর্থবছরে এখাতে বরাদ্দ রয়েছে ৩৭ হাজার ৮০০ কোটি টাকা। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।সূত্র জানায়, বেসরকারি খাতে বিদ্যুৎ উৎপাদনে ভর্তুকির পেছনেই বড় অংকের অর্থ ব্যয় হবে। এখাতে ভর্তুকির প্রস্তাব করা হচ্ছে সাড়ে ৯ হাজার কোটি টাকা। নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রাখতে বেসরকারি খাতে যে সব বিদ্যুৎকেন্দ্র গড়ে উঠেছে সরকারের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী তাদের ভর্তুকি পূরণে এ অর্থ ব্যয় হবে।


অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, আগামী অর্থবছরের জন্য ভর্তুকি, প্রণোদনা ও নগদ সহায়তা খাতে কী পরিমাণ বরাদ্দের প্রস্তাব করা হবে তার একটি খসড়া তৈরি করা হয়েছে। এতে এ তিনটি খাতে ৪২ হাজার ১০০ কোটি টাকা রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে। এরমধ্যে ভর্তুকি খাতে ২৩ হাজার ৬০০ কোটি টাকা, প্রণোদনা খাতে ১৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকা এবং নগদ সহায়তা খাতে ৫ হাজার কোটি টাকা প্রস্তাব করা হচ্ছে। আগামী অর্থবছরে বিদ্যুৎ খাতে সবচেয়ে বেশি ভর্তুকি সাড়ে ৯ হাজার কোটি টাকার পরই রয়েছে কৃষি খাত। এ খাতে প্রণোদনা দেওয়ার জন্য বরাদ্দ থাকছে ৯ হাজার কোটি টাকা। খাদ্য খাতে ভর্তুকি থাকছে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা। অন্যান্য খাতে ভর্তুকি বাবদ বরাদ্দ থাকছে ৯ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। রপ্তানি খাতে নগদ সহায়তা হিসেবে প্রস্তাব করা হবে ৪ হাজার কোটি টাকা। এ ছাড়াও পাটজাত দ্রব্যাদি খাতে প্রণোদনা দেওয়া হবে ৫০০ কোটি টাকা এবং অন্যান্য খাতে ৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখার প্রস্তাব করা হচ্ছে।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')