bangladesh
 15 Aug 17, 05:41 AM
 154             0

বগুড়ার কাটনারপাড়া থেকে ২৭৯৫টি নিবন্ধিত মোবাইল সিমসহ আটক ৯।।    

বগুড়ার কাটনারপাড়া থেকে ২৭৯৫টি নিবন্ধিত মোবাইল সিমসহ আটক ৯।।      

নিউজ ডেস্কঃ বগুড়ায় বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেজিস্ট্রেশনকৃত ২৭৯৫টি মোবাইল সিমকার্ড জব্দ করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। এঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ জানায়,জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল সোমবার দুপুরে বগুড়া শহরের কাটনারপাড়া চকযাদু ক্রস লেনের প্রেসপট্রির আকন্দ লজের নিচতলা থেকে চারজনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতরা হলো ওই এলাকার নিজাম উদ্দিনের ছেলে আশিক দৌলাতানা ওরফে অভি (৩৩),মৃত আব্দুল গোফ্ফারের ছেলে নয়ন ইসলাম (২৮),মৃত মিঠু শেখের ছেলে রিয়াল শেখ (২০) এবং এনামুল হোসেনের ছেলে রাফিউল ইসলাম অন্তর (২০)। এসময় তাদের কাছ থেকে ২ হাজার ৩৭০টি রবি,৩২৫টি গ্রামীণ এবং ১০০টি টেলিটক কোম্পানীর মোবাইল সিমকার্ডসহ মোট ২ হাজার ৭৯৫টি সিমকার্ড জব্দ করা হয়।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মূল আসামী অভির দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে শহরের শিববাটি এলাকার গোলাম রসুল খান রানার ছেলে একটি বেসরকারি মোবাইল ফোন কোম্পানির ডিলার রাফিদ হাসান খান (২৬),চকঝপু পূর্বপাড়ার আব্দুল জলিলের ছেলে লিটন মিয়া (৩০),নিশিন্দারা পশ্চিমপাড়ার মনছুর আলীর ছেলে মঞ্জুরুল হক মঞ্জু (২২),শাজাহানপুরের চাঙ্গুর পূর্বপাড়ার রেজাউল করিমের ছেলে শফিউল আলম শাকিল (২৮) এবং গাবতলীর জামিলবাড়ীয়ার আব্দুল করিমের ছেলে সেলিম রেজাকে (২৫) গ্রেফতার করে পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে প্রেসব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান বিপিএম জানান,গ্রেফতারকৃত রাফিদ হাসান খান বিভিন্ন রিটেইলারের নিকট থেকে বায়োমেট্রিক সিম সংগ্রহ করে মূল আসামী অভিকে দেয়। এই চক্রটি বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশনকৃত সিম সংগ্রহ করে ঢাকা ও সিলেটের দু'জন ভিওআইপি ব্যবসায়ীর নিকট বিক্রি করে থাকে। প্রতারণাসহ নানা ধরনের অপরাধ সংঘটনের কাজে এসব সিম ব্যবহার হয়ে থাকে বলে পুলিশ সুপার জানান। তিনি আরও জানান,গ্রেফতারকৃত বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বেরিয়ে আসবে বলে পুলিশ সুপার মন্তব্য করেন।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')