bangladesh
 18 Sep 19, 06:33 PM
 7             0

ডিএমপি’র নয়া উদ্যোগঃ থানায় মামলা-জিডির তদন্ত তদারকিতে স্বতন্ত্র সেল  

ডিএমপি’র নয়া উদ্যোগঃ থানায় মামলা-জিডির তদন্ত তদারকিতে স্বতন্ত্র সেল   

নিউজ ডেস্কঃ চলতি বছরের ৬ জুলাই রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকায় প্রাইভেটকারের ভেতরে ইরফান খান রাকিব (১৭) নামে এক কিশোরকে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে পালানোর সময় হাতেনাতে জনতার কাছে ধরা পড়ে তার বন্ধু সাদি। গাড়ি শিল্পাঞ্চল থানা এলাকায় পাওয়া গেলেও কথিত দুর্ঘটনাস্থলের কথা মগবাজার উল্লেখ করে মামলা হয় হাতিরঝিল থানায়। তবে রহস্যজনক কারণে থানা পুলিশ দুর্ঘটনার নেপথ্যে কিছু রয়েছে কি-না তা তদন্তের কোনো উদ্যোগ নেয়নি। শেষ পর্যন্ত বাদী রাকিবের বাবা দীন মোহাম্মদ খানের আবেদনে মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কাছে হস্তান্তর করা হয়। থানায় মামলার তদন্তে গাফিলতি ও বাদীপক্ষকে সহায়তা না করার ঘটনা হরহামেশা ঘটছে। তবে এখন থেকে রাজধানীর ৫০ থানায় দায়ের করা মামলার তদন্ত তদারকি করবে পুলিশের একটি স্বতন্ত্র সেল। ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) সদর দপ্তরের ক্রাইম সেলের একাধিক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা থাকবেন এ সেলে। কোনো ঘটনায় থানায় জিডি বা মামলা হলে ১২ ঘণ্টার মধ্যে বাদীর নম্বর ও মামলা-সংক্রান্ত তথ্য কেন্দ্রীয় ওই সেলে পাঠাতে হবে।


জানাগেছে ডিএমপির নবনিযুক্ত কমিশনার শফিকুল ইসলাম দায়িত্ব নেওয়ার পর তার পরামর্শে এমন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। থানায় মামলা-জিডি হলে পরবর্তী করণীয় কী হবে এ-সংক্রান্ত নির্দেশনা গতকাল মঙ্গলবার জারি করে ডিএমপি। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, মামলা বা জিডি করতে গিয়ে থানায় কেউ হয়রানির শিকার হচ্ছে কি-না তা তাৎক্ষণিকভাবে মনিটর করা হবে। কোনো পয়সা লেনদেন হলে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ডিএমপি সদর দপ্তরের একটি টিম এটা তদারক করবে। প্রয়োজনে আমি নিজে মামলার বাদী ও সংশ্নিষ্টদের সঙ্গে কথা বলব। তদন্তের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেব। থানাকে অবশ্যই হয়রানিমুক্ত ও জনবান্ধব করতে হবে।

Comments

নিচের ঘরে আপনার মতামত দিন

')